1. admin@prothombela.com : দৈনিক প্রথমবেলা : দৈনিক প্রথমবেলা
  2. alhajshahalam99@gmail.com : দৈনিক প্রথমবেলা সত্যে অবিচল দৈনিক : দৈনিক প্রথমবেলা সত্যে অবিচল দৈনিক
শিরোনাম :
নওগাঁ টিটিসিতে বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা দেশকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করে- খাদ্যমন্ত্রী ভালুকায় শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়নে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত- মহান মুক্তিযুদ্ধের বিজয়কে ত্বরান্বিত করেছেন শিল্পী সমাজ – খাদ্যমন্ত্রী ঝিনাইগাতী ইউএনওর মোবাইল নম্বর ক্লোন করে চাঁদা দাবি সাভার পৌর ৮নং ওয়ার্ড কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত ধান ক্ষেত থেকে অজ্ঞাত বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার সৈয়দপুরে শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকান্ড জনসম্মুখে তুলে ধরা ও যুদ্ধাপরাধীদের নতুন চক্রান্তের প্রতিবাদে স্থানীয় আ’লীগের জনসভা নওগাঁ রাণীনগরে তাল বীজ রোপণের উদ্বোধন দরিদ্র মানুষের সামাজিক নিরাপত্তা বেড়েছে: খাদ্যমন্ত্রী ভালুকায় জনগণ ও শ্রমিকের কষ্ট লাগবে রাস্তা সংস্কারের উদ্বোধন

খুলনা‘বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের’ শিরোপা জিতলো

  • আপডেট টাইম: শনিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৫৭ বার দেখা হয়েছে

প্রথমবারের মতো আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ’র শিরোপা জিতলো জেমকন খুলনা। রানার আপ হয়েই টুর্নামেন্ট শেষ করতে হলো গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামকে। যদিও টুর্নামেন্টে সবচেয়ে ধারাবাহিক দল, সর্বোচ্চ রান স্কোরার ও উইকেট শিকারী থাকা দল চট্টগ্রাম। তবুও তাদের শেষটা ভালো হলো না।

আগে ব্যাটিং করে খুলনা ৭ উইকেটে ১৫৫ রান তোলে। জবাবে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বীতা গড়ে চট্টগ্রাম ১৫০ রানের বেশি করতে পারেনি। ৫ রানের জয়ে খুলনা শিবিরে চলছিল উৎসব, চট্টগ্রাম শিবির পুড়ছিল আক্ষেপে।

হাফ সেঞ্চুরি পেয়েছিল চট্টগ্রামের সৈকত আলীও। লক্ষ্য তাড়ায় তার ৪১ বলে পাওয়া হাফ সেঞ্চুরিতে জয়ের লড়াইয়ে ছিল চট্টগ্রাম। কিন্তু জয়ের থেকে ১৩ রান দূরে থাকতে সৈকত ৫৩ রানে আউট হলে চট্টগ্রামের সম্ভাবনা শেষ হয়। এক্ষেত্রে খুলনার পেসার শহীদুলকে কৃতিত্ব দিতেই হবে। শেষ ওভারে ৬ রান দরকার ছিল চট্টগ্রামের। ওভারের তৃতীয় ও চতুর্থ বলে মোসাদ্দেক (১৯) ও সৈকতকে ফিরিয়ে খুলনা শিবিরকে উল্লাসে ভাসান ডানহাতি পেসার।

শুরুটাও ভালো ছিল না তাদেরও। সৌম্য মাত্র ১২ রানে শুভাগতর বলে বোল্ড হন। মিথুন ৭ রানে আল-আমিনের বলে এলবিডব্লিউ হন। টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ ৩৯৩ রান করা লিটন এদিন ২৩ রানে রান আউট হন। এরপর ভরসা হয়ে উঠেন সৈকত। ৪৫ বলে ৪ বাউন্ডারিতে ৫৩ রানের ইনিংস খেললেও তা জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিল না। শামসুরের ২৩ ও মোসাদ্দেকের ১৯ রানে পরাজয়ের ব্যবধান কমে মাত্র।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতে হোঁচট খেয়েছিল খুলনা। এরপর খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে পথ চলা। শেষটা হলো ঝড়ো। সেটা মাহমুদউল্লাহর কল্যাণে। ৪৮ বলে ৮ চার ও ২ ছক্কায় ৭০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন মাহমুদউল্লাহ।

ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম বলেই জহুরুল আউট। আগের ম্যাচে ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ ৮০ রান করা জহুরুল এবার রানের খাতা খোলার আগে আউট। স্পিনার নাহিদুলের হাওয়ায় ভাসানো বল লং অফ দিয়ে উড়াতে গিয়ে টাইমিংয়ে গড়বড় করে মোসাদ্দেকের হাতে ক্যাচ দেন। ইমরুল একই ফাঁদে পা দেন। ডানহাতি অফস্পিনারের বল কভার দিয়ে উড়াতে গিয়ে লং অফে ক্যাচ দেন ৮ রানে।

পাওয়ার প্লে’তে জোড়া উইকেট হারিয়ে পিছিয়ে পড়া খুলনা খুব বেশি রান করতে পারেনি। ৬ ওভারে তাদের রান ৪২। পরের ওভারে জাকির সাজঘরের পথ ধরেন মোসাদ্দেককে উড়াতে গিয়ে। মিড উইকেট সীমানায় ধরা পরেন ২৫ রানে। ২০ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কা হাঁকান এ বাঁহাতি।

চতুর্থ উইকেটে আরিফুল ও মাহমুদউল্লাহর জুটিতে আসে ৩২ বলে ৪০ রান। তাতে বিপদ থেকে মুক্তি পায় খুলনা। এ জুটি আগ্রাসন বাড়াতে গিয়ে বিপদ ডেকে আনেন। পেসার শরীফুলের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন ২১ রানে। শুভাগত হোমের ১২ বলে ১৫ রানের প্রতিশ্রুতিশীল ইনিংসটি শেষ হয় একই বোলারের বলে। বাঁহাতি পেসারের শর্ট বল উড়াতে গিয়ে মোস্তাফিজের হাতে ক্যাচ দেন শুভাগত।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
প্রকাশক কর্তৃক স্যানমিক প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, সুত্রাপুর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত। সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ প্রথমবেলা
Site Customized By Rahatit.Com