1. admin@prothombela.com : দৈনিক প্রথমবেলা : দৈনিক প্রথমবেলা
  2. alhajshahalam99@gmail.com : দৈনিক প্রথমবেলা সত্যে অবিচল দৈনিক : দৈনিক প্রথমবেলা সত্যে অবিচল দৈনিক
  3. test10725160@mail.imailfree.cc : test10725160 :
  4. test19562429@mail.imailfree.cc : test19562429 :
  5. test19889280@mail.imailfree.cc : test19889280 :
  6. test20508709@mail.imailfree.cc : test20508709 :
  7. test25025655@mail.imailfree.cc : test25025655 :
  8. test25819562@mail.imailfree.cc : test25819562 :
  9. test32665086@mail.imailfree.cc : test32665086 :
  10. test41624736@mail.imailfree.cc : test41624736 :
  11. test42558696@mail.imailfree.cc : test42558696 :
  12. test44762265@mail.imailfree.cc : test44762265 :
  13. test47777647@mail.imailfree.cc : test47777647 :
  14. test48006207@mail.imailfree.cc : test48006207 :
  15. test49178616@mail.imailfree.cc : test49178616 :
  16. eo3f4129m0y@oosln.com : wpuser_cjchkmtgsedd :
  17. 2dvktkldp7@1secmail.org : wpuser_nqcvwedkrkim :
শিরোনাম :
নওগাঁ টিটিসিতে বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা দেশকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করে- খাদ্যমন্ত্রী ভালুকায় শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়নে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত- মহান মুক্তিযুদ্ধের বিজয়কে ত্বরান্বিত করেছেন শিল্পী সমাজ – খাদ্যমন্ত্রী ঝিনাইগাতী ইউএনওর মোবাইল নম্বর ক্লোন করে চাঁদা দাবি সাভার পৌর ৮নং ওয়ার্ড কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত ধান ক্ষেত থেকে অজ্ঞাত বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার সৈয়দপুরে শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকান্ড জনসম্মুখে তুলে ধরা ও যুদ্ধাপরাধীদের নতুন চক্রান্তের প্রতিবাদে স্থানীয় আ’লীগের জনসভা নওগাঁ রাণীনগরে তাল বীজ রোপণের উদ্বোধন দরিদ্র মানুষের সামাজিক নিরাপত্তা বেড়েছে: খাদ্যমন্ত্রী ভালুকায় জনগণ ও শ্রমিকের কষ্ট লাগবে রাস্তা সংস্কারের উদ্বোধন

দৌলতপুর-দেয়াড়া খেয়াবিহীন খেয়াঘাট কতদিন চলবে

  • আপডেট টাইম: রবিবার, ২০ জুন, ২০২১
  • ১৪৭ বার দেখা হয়েছে
সৈয়দ জাহিদুজ্জামান (দিঘলিয়া) : দিঘলিয়া উপজেলার দেয়াড়া- দৌলতপুর খেয়াঘাটের বেহাল অবস্থা। দুই পারের পাকা ঘাট ভেঙ্গে পারাপারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ইজারাদারদেরও নৌকা মালিকসহ মাঝিদের নানামূখী অনিয়মের কাছে পারাপার যাত্রীরা জিম্মি হয়ে পড়েছে। সাধারণ পারাপার যাত্রীদের মালামাল সহ পারাপার দ্বিগুন মাশুল গুনতে হচ্ছে।সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নিরব।
সূত্র থেকে জানা যায়, খুলনা জেলার দিঘলিয়া উপজেলার ভৈরব নদীতে ৮টি খেয়াঘাটের অন্যতম ঘাট হচ্ছে দৌলতপুর বাজার খেয়াঘাট। যে ঘাট দিয়ে প্রতিদিন ৮/১০হাজার লোক পারাপার হয়। পাশাপাশি ঘাট দিয়ে প্রতিদিন পার হয় কয়েক হাজার বস্তা চাল, ডাল ও হাঁস-মুরগি ও গবাদিপশুর খাবার সহ অন্যান্য মালামাল।
খুলনা জেলা পরিষদ নিয়ন্ত্রিত ঘাট অন্যান্য ঘাটের সাথে নতুন করে ঘাট ডাক হলেও পূর্ব বছরের ন্যায় নানা খোড়া অজুহত দেখিয়ে কোর্টে রীট করে নতুন ইজারাদারদের ঘাট হস্তান্তর বন্ধ করে রেখেছে। তাঁদের নিজস্ব একাধিক যন্ত্র চালিত নৌকা থাকার নিয়ম থাকলেও কোনো নৌকা নেই। কিন্তু তারা পারাপার যাত্রীদের নিকট থেকে২টাকা করে টোল আদায় করে এবং মালামালের জন্য অতিরিক্ত টাকা আদায় করে থাকে। ঘাটে মাঝিদের ভাড়া করা নৌকা থাকে। মাঝিদের মালিককে নৌকা ভাড়া দিতে হয়। অপরদিকে ইজারাদাররা ঘাট খাজনা বাবদ মাঝিদের কাছ থেকে প্রতিদিন ৩০/৪০ টাকা করে আদায় করে থাকে। মাঝিরাও লোকজনের কাছ থেকে পারাপারের জন্য ২ টাকা করে এবং মালামালের জন্য অতিরিক্ত টাকা আদায় করে থাকে। যাত্রীদের যেখানে ২ টাকা টোল দিয়ে নদী পার হওয়ার কথা সেখানে প্রত্যেক যাত্রীকে ৪ টাকা টোল দিতে হচ্ছে।মালামালের ক্ষেত্রেও দ্বিগুন টাকা দিতে হচ্ছে। বর্ষাকাল বা বৃষ্টি হলেই জন প্রতি ৫/১০ টাকা না দিলে নৌকা ছাড়ে না। পারাপার যাত্রীদের সাথে খারাপ ব্যবহার করে বলেও অনেক অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এ ব্যাপারে সুজন নামে জনৈক ঘাট ঠিকাদারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানান,সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নৌকার মাঝি ও মালিকদের কাছে জিম্মি। ঘাটের নৌকা অপসারণ করুক। আমরা আমাদের চুক্তি অনুযায়ী ঘাটে নৌকা দিব। আমাদের ইচ্ছে থাকা সত্বেও ঘাটে নৌকা দিতে দিচ্ছেনা। তাহলে আমরা টোল কম নেব কেন? একটি স্বার্থান্বেষীমহল নৌকার মাঝি ও নৌকার মালিকের কাছ থেকে মাসোহারা নেয়। এই মহলটি সংশ্লিষ্ট ও স্থানীয় প্রশাসনকে ভুলভাল বুঝিয়ে এ সমস্যাকে ঝুলিয়ে রাখছে। মাসের পর মাস পারাপার যাত্রীদের দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সরকারি ঘাটে সীট কিসের? ৩/৪ লাখ টাকা করে সীট বিক্রি হয়। সরকারি ঘাটে চুক্তি অনুযায়ি ইজারাদারগণ ঘাটে পারা পারের সকল দায়ভার বহন করবে। কিন্তু দৌলতপুর বাজার খেয়াঘাটে ব্যক্তি অনিয়ম। এ অনিয়ম আগে স্থানীয় প্রশাসনকেই দূর করতে হবে। মালিকের নৌকা অপসারণ করতে হবে। ইজারাদারদের খেয়ানৌকা দিতে বাধ্য করতে হবে।তবেই ঘাটের অনিয়ম দূর হবে। বর্তমানে মাঝি নির্ভর খেয়াঘাট।মাঝিরা কথায় কথায় নৌকা বন্ধ করে দেয়। এলাকাবাসীর অভিযোগ  ইজারাদারগন ও মাঝিরা ইচ্ছামাফিক ঈদের ছুটিতে দ্বিগুণের বেশী টোল আদায় করে। মালামাল পারাপারে বেশী টাকা আদায় করে। ঘাটের অবস্থা পারাপারের অযোগ্য।এ ব্যাপারে দিঘলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবুল আলমের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানান, ঘাটের এ সমস্যা নিয়ে কয়েক দফা বসা হয়েছে। একটি মহল মাঝিদের পক্ষে সুপারিশ করেছে। তিনি বিষয়টা দেখবেন বলে জানান। ভুক্তভোগী মহলের জিঞ্জাসা দৌলতপুর খেয়াঘাটসহ ৮টি খেয়াঘাটের এ অনিয়ম সমাধানে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কী কোন দায়িত্ব নেই? খেয়াঘাটগুলোর এ পারাপার যাত্রী বিড়াম্বনা কতদিন ধরে চলবে? এদিকে দুই পারের পাকা ঘাট ভেঙ্গে পারাপারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। মালামাল ও যাত্রী পারাপার ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। প্রতিনিয়ত লোকজন পড়ে গিয়ে হাত পা ভাঙ্গছে। ভুক্তভোগীরা প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে ও কোনো প্রতিকার পাচ্ছেনা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
প্রকাশক কর্তৃক স্যানমিক প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, সুত্রাপুর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত। সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ প্রথমবেলা
Site Customized By Rahatit.Com