সত্যে অবিচল দৈনিক প্রথমবেলা

সকালের বৃষ্টিতে অফিসগামীদের ভোগান্তি রাজধানী

32

সকাল ৮টা বাজতে দুয়েক মিনিট বাকি। প্রতিদিনের মতো অফিস যাওয়ার জন্য বের হলেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের আইটি কর্মকর্তা আশিকুর রহমান। কিন্তু যখনই গ্যারেজ থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে বের হবেন, ঠিক তখনই বেরসিক বৃষ্টি হুড়মুড় করে নেমে এলো। এদিকে অফিসে সঠিক সময়ে প্রবেশ করতে না পারলে।

বুধবার (২১ অক্টোবর) সকালে হঠাৎ বৃষ্টিতে এমনই ভোগান্তিতে ফেলেছে অফিসগামীদের। যারা অফিসে যাওয়ার জন্য বের হয়েছেন অনেককে ভিজতে হয়েছে গাড়ির অপেক্ষায় থেকে। বৃষ্টি বেশিক্ষণ স্থায়ী না হলেও এটুকুতেই রাস্তায় পানি জমতে দেখা গেছে।

এ সুযোগে রিকশা ভাড়াও বাড়তি দাবি করতে দেখা গেছে চালকদের। কোনো উপায় না পেয়ে বেশি ভাড়ায় ধানমন্ডি জিগাতলা থেকে নিউমার্কেট যাচ্ছেন বেসরকারি ব্যাংক কর্মকর্তা ইশরাত জাহান। তিনি জানালেন, প্রতিদিন যে ভাড়া যেতার আজকে বৃষ্টি হওয়াতে তার দ্বিগুন দিতে হচ্ছে।

ধানমন্ডি থেকে মতিঝিল যাওয়ার জন্য বাসা থেকে বের হয়েছেন রিপন হোসেন। কিন্তু বাসা থেকে বের হয়েই দেখেন বৃষ্টি এবং রাস্তায় পানি জমে গেছে। বৃষ্টিতে পুরো শরীর ভিজে গেছে তার। তিনি বলেন, মতিঝিলে অফিসে যাওয়ার জন্য বাসা থেকে বের হরি দেখি তুমুল বৃষ্টি শুরু হয়েছে। কিন্তু বৃষ্টির যে গতি তাতে ছাতা দিয়েও রেহাই পাওয়া যায়নি। পুরো শরীর ভিজে একাকার হয়ে গেছে।

এদিকে মিনিট বিশেকের টানা বৃষ্টিতে রাজধানীতে দেখা দিয়েছে যানজট। বিজয় সরণি-ফার্মগেট-কারওয়ান বাজার থেকে শাহবাগ পর্যন্ত বেশ যানজট রয়েছে বলে জানা গেছে। অন্যদিকে, মিরপুর-১০ নম্বর গোলচত্বরকে ঘিরে থাকা সবগুলো সড়কে গাড়ির বেশ চাপ রয়েছে। সকাল থেকে ভারী বৃষ্টির কারণে ওই এলাকার রাস্তায় বেশ পানি জমে গেছে। এজন্য অফিসগামী মানুষের দুর্ভোগ আরও চরমে পৌঁছেছে।

এছাড়া খেটে খাওয়া মানুষ ও ফুটপাতের দোকানিদেরও সমস্যায় পড়তে হয়েছে বৃষ্টির কারণে। তারপরেও যানজট আর জলজটের সঙ্গে এক ধরনের যুদ্ধ করেই গন্তব্য যেতে হচ্ছে নগরবাসীকে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.